ঢাকাসোমবার , ১৩ মে ২০২৪
আজকের সর্বশেষ খবর

এসএসসি তে লাকসামে ৪৮ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৩ প্রতিষ্ঠানে শতভাগ পাশ

হামিদুল ইসলাম চট্টগ্রাম বিশেষ প্রতিনিধি 
মে ১৩, ২০২৪ ৪:৫৫ অপরাহ্ণ । ৯৭ জন
Link Copied!

print news

এসএসসি, এসএসসি ভোকেশনাল ও দাখিল পরীক্ষায় এবার লাকসামে ৩টি প্রতিষ্ঠানের শতভাগ শিক্ষার্থী পাশ করেছে, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৭৬ জন। উপজেলার ৪৮টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে এসএসসি ভোকেশনালে ২টি স্কুল ও দাখিলে ১টি মাদ্রাসার শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়।রোববার (১২ মে) প্রকাশিত ফলাফলে কুমিল্লা শিক্ষা বোর্ডের অধীন ২৪টি হাইস্কুল থেকে ২৫৪১ জন এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২১৬৩ জন উত্তীর্ণ হয়। এদের মধ্যে ১৯৩ জন জিপিএ-৫ লাভ করে। পাশের হার শতকরা ৮৫.১২ ভাগ।অন্যদিকে, মাদ্রাসা শিক্ষা বোর্ডের অধীনে উপজেলার ১৮টি মাদ্রাসার ৯১৯ জন দাখিল পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ৭১০ জন উত্তীর্ণ হয়। এদের মধ্যে ৮০ জন জিপিএ-৫ লাভ করে। একটি মাদ্রাসার শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়। উপজেলায় পাশের হার শতকরা ৭৭.২৬ ভাগ। কারিগরী শিক্ষা বোর্ডের অধীনে উপজেলার ৬টি প্রতিষ্ঠানের ২৫৪ জন অংশগ্রহণ করে ২৩৯ জন উত্তীর্ণ হয়। এদের মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন। দুটি প্রতিষ্ঠানের শতভাগ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হয়। উপজেলায় পাশের হার শতকরা ৯৪.০৯ ভাগ।লাকসাম উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা প্রসাদ কুমার ভাওয়াল এ তথ্য নিশ্চিত করেন।এবার কারিগরী শিক্ষা বোর্ডের অধীনে লাকসাম সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭২ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে শতভাগ উত্তীর্ণসহ একজন জিপিএ-৫ লাভ করে এবং মুদাফরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ২৪ জন শিক্ষার্থীর সকলেই উত্তীর্ণ হয়। এছাড়া, আল আমিন ইনস্টিটিউটের ৬০ জনে ৫৭ জন উত্তীর্ণ হয়। ২ জন জিপিএ-৫ লাভ করে। পাশের হার ৯৫ ভাগ। উত্তরদা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৮ জনে ১৭ জন উত্তীর্ণ হয়। পাশের হার ৯৪.৪৪ ভাগ। রহমানিয়া চিরসবুজ উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৫ জনে ৩৩ জন উত্তীর্ণ হয়। পাশের হার ৯৪.২৯ ভাগ। দৌলতপুর কারিগরি উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৫ জনে ৩৬ জিপিএ-৫ লাভ করে। পাশের হার ৮০ ভাগ।মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে উপজেলার পাশাপুর মহিলা দাখিল মাদ্রাসার ২৪ জনে শতভাগ উত্তীর্ণ, ৪ জন জিপিএ-৫ লাভ করে। মুদাফরগঞ্জ ফাজিল মাদ্রাসার ৮৬ জনে ৮৫ জন উত্তীর্ণ, ১৭ জন জিপিএ-৫ লাভ করে, পাশের হার ৯৮.৮৪ ভাগ। এম এ বারি দাখিল মাদ্রাসার ২৮ জনে ২৭ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৯৬.৪৩ ভাগ। আউশপাড়া ফাজিল মাদ্রাসার ৪৬ জনে ৪৪ জন উত্তীর্ণ, ২ জন জিপিএ-৫, পাশের হার ৯৫.৬৫ ভাগ। বিজরা নাজিরিয়া ফাজিল মাদ্রাসার ৬৩ জনে ৬০ জন উত্তীর্ণ, ২২ জন জিপিএ-৫, পাশের হার ৯৫.২৪। আল হেদায়া মহিলা দাখিল মাদ্রাসার ৩৬ জনে ২৯ জন উত্তীর্ণ, ৮ জন জিপিএ-৫, পাসের হার ৮০.৫৬ ভাগ। কালিয়াপুর আলিম মাদ্রাসার ২৫ জনে ২০ জন উত্তীর্ণ, ২ জন জিপিএ-৫, পাশের হার ৮০.০০ ভাগ। বড়বাম ফাজিল মাদ্রাসার ১১৪ জনে ৮৯ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ জন, পাশের হার ৭৮.০৭ ভাগ। মাওলানা নাজমুল হক দাখিল মাদ্রাসার ৩৫ জনে ২৫ জন উত্তীর্ণ পাশের হার ৭৭.৪৩ ভাগ। গোপালপুর দাখিল মাদ্রাসার ২৫ জনের ১৮ জন উত্তীর্ণ পাশের হার ৭২.০০ ভাগ। দোগাইয়া দাখিল মাদ্রাসার ৩৯ জনে ২৮ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৭১.৭৯ ভাগ। দৌলতগঞ্জ গাজীমুড়া কামিল মাদ্রাসার ১৩৬ জনের ৯৬ জন উত্তীর্ণ , জিপিএ-৫ পেয়েছে ৬ জন, পাশের হার ৭০.৫৯ ভাগ। নারায়ণপুর দাখিল মাদ্রাসার ৩৯ জনের ২৭ জন উত্তীর্ণ পাশের হার ৬৯.২৩ ভাগ। মোজাদ্দেদিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৫০ জনের ৩৩ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৬৬.০০ ভাগ। আবেদনগর দাখিল মাদ্রাসার ৪২ জনে ২৭ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৬৪.২৯ ভাগ। ছিলইন আলিম মাদ্রাসার ২৫ জনে ১৫ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৬০.০০ ভাগ। পেঁচরা দাখিল মাদ্রাসার ৫২ জনে ৩১ জন উত্তীর্ণ একজন জিপিএ-৫ পাশের হার ৫৯.৬২ ভাগ। ফুলগাঁও ফাজিল মাদ্রাসার ৫৪ জনে ৩২ জন উত্তীর্ণ, ২ জন জিপিএ-৫, পাশের হার ৫৯.২৬ ভাগ।এবার এসএসসিতে লাকসাম সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৭৫ জনে ১৭১ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪১ জন, পাশের হার ৯৭.৭১ ভাগ। অশ্বদিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩৯ জনে ৩৮ জন উত্তীর্ণ, ৫ জন জিপিএ-৫, পাশের হার ৯৭.৪৪ ভাগ। শহীদ আবুল খায়ের উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৭ জনে ৭৫ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৯৭.৪০ ভাগ। বরইগাঁও বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৫ জনে ৫৩ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩ জন, পাশের হার ৯৬.৩৬ ভাগ। তোরাব আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৮ জনে ৫৬ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৯৬.৫৫ ভাগ। নবাব ফয়জুন্নেছা ও বদরুন্নেসা যুক্ত উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯০ জনে ১৮৩ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৩ জন, পাশের হার ৯৬.৩২ ভাগ। জালাল মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৩ জনে ৭৯ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে একজন, পাশের হার ৯৫.১৮ ভাগ। শ্রীয়াং আলহাজ ছিদ্দিকুর রহমান উচ্চ বিদ্যালয়ের ৪৬ জনে ৪৩ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৯৩.৪৮ ভাগ। মুদাফরগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ২২৫ জনে ২০৯ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৩ জন, পাশের হার ৯২.৮৯ ভাগ। এ মালেক ইনস্টিটিউটের (রেলওয়ে হাইস্কুল) ১০৮ জনে ৯৯ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ জন, পাশের হার ৯১.৬৭ ভাগ। রহমানিয়া চির সবুজ উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ১৪৬ জনে ১৩৩ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১৬ জন, পাশের হার ৯১.১০ ভাগ। রাজাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭৭ জনের ৭০ জন উত্তীর্ণ, ২ জন জিপিএ-৫, পাশের হার ৯০.৯১ ভাগ। গণ উদ্যোগ বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের ৮১ জনে ৭৩ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৯০.১২ ভাগ। জ্যোতিঃপাল মহাথের উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৮ জন ৫১ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৮৭.৯৩ ভাগ। মেল্লা জেসিসিকে উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৯ জনে ৫১ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে একজন, পাশের হার ৮৬.৪৪ ভাগ। আল আমিন ইনস্টিটিউটের ২১৫ জনের ১৮৩ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ১১ জন, পাশের হার ৮৫.২২ ভাগ। ইছাপুরা সেন্ট্রাল উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮৯ জনে ৭২ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৮০.৯০ ভাগ। লাকসাম পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ২১৯ জন্য ১৭৫ জন উত্তীর্ণ, জিপিএ-৫ পেয়েছে ৩০ জন, পাশের হার ৭৯.৫১ ভাগ। উত্তরদা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১১২ জনে ৮৫ জন উত্তীর্ণ জিপিএ-৫ একজন, পাশের হার ৭৫.৮৯ ভাগ। নরপাটি বহুমূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৩২ জনের ৯৯ জন উত্তীর্ণ, পাশের হার ৭৫.০০ ভাগ। ভাকড্যা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৫৫ জনে ৩৩ জন উ