ঢাকামঙ্গলবার , ৩০ এপ্রিল ২০২৪
আজকের সর্বশেষ খবর

মোটরসাইকেল প্রতিকের প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলা আহত-২

সৈয়দ মো: স্বাধীন রিপোর্টার
এপ্রিল ৩০, ২০২৪ ৪:৪৯ অপরাহ্ণ । ২০ জন
Link Copied!

print news

মোটরসাইকেল প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এঘটনায় আহত ২ জনকে শেবাচিম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার (২৯ এপ্রিল) রাত সাড়ে ৭ টায় উপজেলার চরবাড়িয়া ইউনিয়নের কাগাশুরা বাজার এলাকায় সদর উপজেলা ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সভাপতি রাসেল মুন্সী (৪০) নেতৃত্বে এ হামলার ঘটনা ঘটে। এঘটনায় কাউনিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছন। এসময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত জনতা অপু ও সাকিব নামে দুই হামলাকারীকে অবরুদ্ধ করে পুলিশে সোপর্দ করে।জানাযায়, আটককৃত সাকিব অভিযুক্ত রাসেল মুন্সীর চাচা সত্তার মুন্সীর ছেলে এবং অপু নগরীর পুরানপাড়া এলাকার বাসিন্দা।প্রতক্ষ্যদর্শীরা জানান, মোটরসাইকেল প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর বোনসহ পরিবারের সদস্যদের সাথে নিয়ে চরাবড়িয়া ইউনিয়নের সমর্থক বরিশাল জেলা পরিষদের সদস্য শহীদুল ইসলাম (ইটালী শহীদ), চরবাড়িয়া ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক রানা শরীফসহ কয়েকজন তাদের কাগাশুরা বাজারের নির্বাচনী কার্যালয়ে যাওয়ার সময় রাসেলের নেতৃত্বে একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ তাদের পথরোধ করে অকথ্য ভাষায় গালাগাল দিয়ে বলেন, তোরা মোটরসাইকেল এর নির্বাচন ক্যান করতেছোস, নির্বাচনের মাঠ থেকে সরে যা।এসময় রাসেল ও তার সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য মনির মুন্সী, সাকিব মুন্সী, হৃদয় মৃধা, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রেহেনা বেগমের ছেলে রায়হান, স্থানীয় আলাউদ্দিন এর ছেলে আশিক, জুয়েল, জসীম খান ও অপুসহ অজ্ঞাত ১০/১২ জন মিলে রানা শরীফের ওপর অতর্কিত হামলা করে। এসময় রানাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে জেলা পরিষদ সদস্য ইটালী শহিদ এর ওপর হামলার চেস্টা চালায় রাসেল মুন্সী। খবর পেয়ে রানা শরীফের স্ত্রী বাড়ি থেকে ছুটে এসে তার স্বামীকে হামলা থেকে রক্ষার চেষ্টায় এগিয়ে আসলে তাকেও শ্লীলতাহানী করে সন্ত্রাসীরা। এসময় তার গলায় থাকা একটি ১ ভরি ওজনের স্বর্ণের চেইন সন্ত্রাসীরা ছিনিয়ে নিয়ে যায় বলে তিনি অভিযোগ করেন।এ ঘটনায় ইটালী শহিদ সাংবাদিকদের জানান, কোন কথা না বলে আমাদের পথরোধ করে রাসেল ও তার বাহিনীর সদস্যরা উদ্দ্যেশ্য প্রনোদিতভাবে আমাদের অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করেন। এর প্রতিবাদ করলে আমার সাথে থাকা রানার ওপর রাসেলের নেতৃত্বে কয়েকজন হামলা করেন।তিনি আরো জানান, খবর পেয়ে কাউনিয়া থানা এসআই মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনাস্থলে এসে হামলাকারীদের সাথে কানাঘুষা শুরু করেন। তখন আহত রানা শরীফ মোস্তাফিজুর রহমানের পা ধরে নিজের জীবন বাঁচাতে আকুতি মিনতি করলেও তিনি কোন ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করেননি।ঘটনাস্থলে উপস্থিত মোটরসাইকেল প্রতিকের একাধিক সমর্থক বলেন, খবর পেয়ে এসআই মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনাস্থলে আসলেও তার ভূমিকা ছিলো রহস্যজনক। তিনি নিশ্চিয়ই অর্থের বিনিময়ে চিহ্নিত বালুখেকো রাসেলের সাথে আতাত করেছেন। আমরা অনতিবিলম্বে মোস্তাফিজুর রহমানের প্রত্যাহার চাই।তবে মোটরসাইকেল প্রতিকের চেয়ারম্যান প্রার্থী এস এম জাকির হোসেন অভিযোগ করে বলেন, সদর উপজেলার বহিস্কৃত ছাত্রলীগ সভাপতি রাসেলের নেতৃত্বে সন্ত্রাসী বাহিনী যে হামলা করেছেন তা পরিকল্পিত। সোমবার সারাদিন বিভিন্ন ইউনিয়নে আমার পোস্টার ছিড়ে ফেলা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে আমার কর্মী সমর্থকদের নানাভাবে হুমকি-ধামকি দেয়া হচ্ছে। কিন্তু ‘অন্যায়কারী, অপরাধীরা কখনো শক্তিশালী হয়না। কোন মাস্তান, কোন গুন্ডা বাহিনী যতই হুমকি ধামকি দিক না ক্যানো আমাকে নির্বাচন থেকে দূরে সরাতে পারবে না। আমি প্রশাসনের কাছে দাবী জানাচ্ছি নির্বাচনের পরিবেশ রক্ষায় আপনারা কঠোর ভূমিকা পালন করবেন।এবিষয়ে বরিশাল মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার কাউনিয়া মো: সরোয়ার জানান, ভুক্তভোগীদের অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগনুযায়ী তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানিয়েছেন।