ঢাকাশনিবার , ১৬ মার্চ ২০২৪
আজকের সর্বশেষ খবর

মুন্সিগঞ্জের পঞ্চবটি-মুক্তারপুরে সড়ক উন্নয়নের কাজ চলাতে,তীব্র জেম জট সহ ধুলো বালিতে অতিষ্ঠ যাত্রী সাধারণ

রিপোর্টার মেহেদী হাসান অলি
মার্চ ১৬, ২০২৪ ৪:০৭ অপরাহ্ণ । ৯১ জন
Link Copied!

print news

মুন্সিগঞ্জের পঞ্চবটি থেকে মুক্তারপুরে সড়ক উন্নয়নের কাজ চলাতে।তীব্র জেম জট সহ ধুলো বালিতে অতিষ্ঠ যাত্রী সাধারণ সহ স্থানীয় এলাকার জনসাধারণ।এদিকে সড়কটির প্রকল্প উন্নয়নের স্পটে গেলে দেখা যায় বিশাল কর্মযজ্ঞের মধ্যে পুরোদমে কাজ চলছে।যার কারনে সৃষ্টি হচ্ছে কিছুক্ষণ পরপর যানজট।সাথে পুরো এলাকা জুড়ে কুয়াশার মতো ধুলাবালি ও চোখে পরে।পুনঃনির্মাণাধীন সড়কটির কিছু অংশে গাড়ির সাহায্যে সড়কটিতে পানি ছিটালেও তা পর্যাপ্ত নয়।রাস্তাটির বিভিন্ন স্থানে ধুলাবালি জমে থাকায় যেকোনো সময় তা বাতাসের সাথে মিশে যাচ্ছে।যার ফলে সৃষ্টি হচ্ছে জনজীবনে দুর্ভোগ।ধুলাবালির তীব্রতা এতটাই দেখা গেছে যা মানুষের জনজীবনকে বিষিয়ে তুলেছে।পথচারীদের অভিযোগ অপরিকল্পিত সড়ক উন্নয়নের কাজ চলায় মানুষের দুর্ভোগ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে যা দেখার যেন কেউ নেই।সাধারণ যাত্রীরা বলছে প্রতিদিন যাতায়াতের সময় ধুলাবালি সহ তীব্র জেম জট থাকার কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ছে শিশুসহ বয়জ্যৈষ্ঠরা।দেশের বিভিন্ন শহরগুলির সড়ক উন্নয়নে ক্ষেত্রে অপরিকল্পিত কাজের জন্য প্রায়শই দেখা যায় জনগণের দুর্ভোগের চিত্র।খুব দুঃখের সাথে বলতে হয়,এসব দেখার পরেও প্রকল্প উন্নয়নের সাথে জড়িত সরকারি প্রকৌশলী সহ ঠিকাদাররা জনদুর্ভোগের কথা চিন্তা করে পরিকল্পিত কোন ব্যবস্থা নেয় না।যখন তখন বাতাসে ধুলাবালি উড়ার ফলে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পরছে সাধারণ জনগণ।এমনিতে অত্র এলাকাটি শিল্প অঞ্চল হওয়াতে বিভিন্ন ফ্যাক্টরিও কলকারখানা থেকে নির্গত ধোঁয়া ও সিমেন্ট ফ্যাক্টরি থেকে নির্গত বিষাক্ত রাসায়নিক ও ফ্যাক্টরিতে ব্যবহৃত মাটি প্রায়শই বাতাসের সাথে মিশে মানব দেহের মারাত্মক ক্ষতি করছে।সরকারের মেগা প্রকল্পের উন্নয়নের সাথে পাল্লা দিয়ে বায়ু দূষণ জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করছে।স্থানীয়দের দাবি গাছপালা সহ বসত ঘরের জিনিসপত্র ধুলাবালির আস্তরণে ঢেকে যায়।এতে করে শ্বাসকষ্ট সহ বিভিন্ন রোগের হুমকির মুখে জীবন জীবিকা পার করতে হচ্ছে।স্থানীয় সরকার ও প্রশাসনের নাকের ডগায় পরিবেশ দূষণের এই কর্মযজ্ঞ চলছে দেখার যেন কেউ নেই।তাই সাধারণ মানুষের দাবি দ্রুত সময়ের মধ্যে পরিবেশ দূষণ রোদে,সরকার গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিবে।