ঢাকাশনিবার , ১৮ মে ২০২৪
আজকের সর্বশেষ খবর

ঝালকাঠিতে উপজেলা নির্বাচন চেয়ারম্যান প্রার্থী খান আরিফুরের বিরুদ্ধে আবারও হামলার অভিযোগ

রিপোর্টার রফিকুল ইসলাম 
মে ১৮, ২০২৪ ৯:১৫ পূর্বাহ্ণ । ২৩ জন
Link Copied!

print news

চেয়ারম্যান প্রার্থী খান আরিফুরের বিরুদ্ধে আবারও হামলার অভিযোগ ঝালকাঠি সদর উপজেলা চেয়ারম্যান প্রার্থী খান আরিফুর রহমানের আনারস প্রতীকের সমর্থকদের বিরুদ্ধে অপর প্রার্থী নুরুল আমিন খান সুরুজের কাপ-পিরিচ প্রতীকের সমর্থকদের ওপর আবারও হামলা চালানোর অভিযোগ উঠেছে।শুক্রবার (১৭ মে) রাতে সদর উপজেলার ধানসিঁড়ি গাবখান ইউনিয়নের গাবখান বাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এতে নারী-পুরুষ শিশুসহ ৭ জন আহত হয়েছেন। ঝালকাঠি সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।নুরুল আমিন খান সুরুজের কর্মী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, আনারস প্রতীকের পক্ষে প্রচারণায় অংশগ্রহণ না করে কাপ-পিরিচ প্রতীকের পক্ষে প্রচারণায় অংশ নেওয়ায় খান আরিফুর রহমানের কর্মীরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। তারা লাঠিসোটা ও লোহার রড দিয়ে এলোপাথাড়ি মারতে শুরু করে। এতে জাকির তালুকদার (৪৫), মনির তালুকদার (৩৫), বাপ্পারাজ (২৮), সুমি বেগম (২৬), জাকারিয়াসহ (৩) ৭ জনকে আহত হন। এরপর খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। রক্তাক্ত অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে ঝালকাঠি সদর হাসপাতালে নেওয়া হয়। কর্তব্যরত চিকিৎসক প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে আহত মনির তালুকদার ও জাকির তালুকদারকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে পাঠান। বাকিদের সদর হাসপাতালে ভর্তি রাখা হয়েছে। এর আগে গত ১৪ মে তারা আমাদের একটি নির্বাচনী অফিস ভাঙচুর করেছে। এ বিষয়ে চেয়ারম্যান প্রার্থী কাপ-পিরিচ প্রতীকের নুরুল আমিন খান সুরুজ বলেন, প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী খান আরিফুর রহমানের আনারস প্রতীকের কর্মীরা হামলা চালিয়ে আমার কর্মীদের আহত করেছে। খবর শুনে হাসপাতালে চলে এসেছি। আনারস প্রতীকের পক্ষে কাজ না করলে বাড়িঘর ছাড়া করার হুমকি দিচ্ছে আমার নেতাকর্মীদের। এমন পরিস্থিতি তারা তৈরি করেছে যার জন্য আমি সকালে বাসা থেকে বের হওয়ার আগে দোয়া-কালাম পরে বের হই। কারণ আমি যে কোনো সময় মারা যেতে পারি, যে কোনো সময় আমার জানাজা হতে পারে।ঝালকাঠিতে নির্বাচনী পথসভায় হামলা, চেয়ারম্যান প্রার্থীসহ আহত ২০ অভিযোগ অস্বীকার করে খান আরিফুর রহমান বলেন, আমি সেখানে ছিলাম না। কারা এ হামলা করেছে তা আমি জানি না। ওসি শহিদুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। আহতদের দেখতে আমি হাসপাতালে গিয়েছিলাম। এ বিষয়ে কেউ লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। প্রসঙ্গত, গত ১৫ মে রাতে শহরতলীর কীর্ত্তিপাশা মোড়ের দোয়াত-কলম প্রতীকের এক নির্বাচনী প্রচারণা সভায় চেয়ারম্যান প্রার্থী সুলতান হোসেন খানসহ তার নেতাকর্মীদের ওপর হামলা ও গাড়ি ভাঙচুরের অভিযোগ ওঠে খান আরিফুর রহমানের কর্মীদের বিরুদ্ধে। এতে তিন গণমাধ্যমকর্মীসহ আহত হয়েছেন অন্তত ২০ জন।  দ্বিতীয় ধাপে ঝালকাঠি সদরের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়াম্যান পদে মোট তিনজন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এর মধ্যে দোয়াত-কলম প্রতীকের সুলতান হোসেন খান জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। খান আরিফুর রহমান বর্তমান চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি। অপর প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী হলেন, কাপ-পিরিচ প্রতীকের জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নুরুল আমীন খান সুরুজ। আগামী ২১ মে দ্বিতীয় ধাপে সদর ও নলছিটি উপজেলা পরিষদে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।