ঢাকামঙ্গলবার , ২৮ মে ২০২৪
  • অন্যান্য
আজকের সর্বশেষ খবর

ঝিনাইদহে ধর্ষণ মামলায় ইউপি চেয়ারম্যানের যাবজ্জীবন

মো: মহিবুল ইসলাম খুলনা বিভাগীয় ব্যুরো চীফ
মে ২৮, ২০২৪ ৯:১৫ অপরাহ্ণ । ১১০০ জন
Link Copied!

print news

ঝিনাইদহে ধর্ষণ মামলায় সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে তাঁকে পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। আজ মঙ্গলবার দুপুরে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. মিজানুর রহমান এই রায় দেন। দণ্ডপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফরিদ বর্তমানে জেলা শহরের ধোপাঘাটা গোবিন্দপুর গ্রামে বাস করেন। মামলার বিবরণে জানা যায়, ঝিনাইদহ শহরের কোরাপাড়া বটতলা এলাকার ভুক্তভোগী নারীর সঙ্গে তাঁর স্বামীর পারিবারিক মনোমালিন্য বিষয় নিয়ে সমাধানের জন্য (ব্যক্তিগত পরিচয়ের সূত্রে) সদর উপজেলার হরিশংকরপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদের কাছে যায়। সে সময় চেয়ারম্যান তাঁকে বিচার করে দেবে বলে আশ্বস্ত করেন। পরে ২০২২ সালের ১৫ এপ্রিল চেয়ারম্যান ফরিদ তাঁর গ্রামের বাড়িতে যেতে বলেন ওই নারীকে (নরহরিদ্রা গ্রামে)। এরপর তাঁর বাড়িতে গেলে তিনি ওই নারীকে নেশাজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে ধর্ষণ করেন। এ ঘটনায় ১৯ এপ্রিল ওই নারী ঝিনাইদহ সদর থানায় দুজনকে আসামি করে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। তদন্ত শেষে পুলিশ দুজনকেই অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগ পত্র দেয়। বিচারিক প্রক্রিয়া শেষে আদালত ওই মামলায় চেয়ারম্যান খন্দকার ফারুকুজ্জামান ফরিদকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড ও পাঁচ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের সশ্রম কারাদণ্ড দেন। মামলার অপর আসামির দোষ প্রমাণিত না হওয়ায় তাঁকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে। এদিকে মামলার রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী এ্যাড. মো. বজলুর রহমান বলেন, ‘এই মামলায় আমরা চেয়েছিলাম আসামির দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক। আদালত যে রায় দিয়েছেন তাতে আমরা সন্তুষ্ট।